logo

সময়: ০৫:৪৯, রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

১০ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ০৫:৪৯ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর

লক্ষ্মীপুরে রাতের অন্ধকারে কৃষকের জমি দখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ

Ekattor Shadhinota
১০ মার্চ, ২০২১ | সময়ঃ ১০:৪৫
photo
লক্ষ্মীপুরে রাতের অন্ধকারে কৃষকের জমি দখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা টুমচর ইউনিয়নের কালীরচর গ্রামের এক কৃষককে তার নিজ ঘরে তালা দিয়ে আটকে রেখে জমি দখল করে বসত ঘর নির্মাণ করেছে ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি নাছির মাঝি। পেশি শক্তি ব্যবহার করে রাতের অন্ধকারে লোকবল নিয়ে ঘর নির্মান করে নাছির ও তার অনুসারীরা। থানায় হটলাইনের মাধ্যমে অভিযোগ করেন ভুক্তভূগি ইউছুফ। খবর পেয়ে সদর মডেল থানা উপ-পরিদর্শক আবুল বাশার ও উপ-পরিদর্শক আমির হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে কৃষক পরিবারদের তালাবদ্ধ ঘর থেকে উদ্ধার করে। এসময় নাছির মাঝি দলবল নিয়ে পালিয়ে যায়। অভিযুক্ত নাছির উদ্দিন মাঝি সদর উপজেলার টুমচর ইউনিয়নর মৃত আব্দুল হাসেমের ছেলে। ভুক্তভোগী কৃষক ইউছুফ সাংবাদিকদের অভিযোগ করে বলেন পৈত্রিক ও খরিদ সূত্রে মালিকানা নিয়ে দ্বীর্ঘ ২০ বছর ভোগ দখল রয়েছে এবং পরিবার পরিজন নিয়ে সেখানে বসবাস করছেন তিনি। তিনি বলেন বিভিন্ন সময় নাছির মাঝি আমার দখলীয় বসতবাড়ীতে ক্রয় সূত্রে মালিকানা দাবী করে আসছে। অথচ তার কোন ভিত্তি নাই, কিংবা নুন্যতম প্রমানাধি দলিলাদি নেই। সম্পূর্ণর”পে মিথ্যা মালিকানা দাবী করে গত বছরের জানুয়ারীতে সাইড ওয়াল নির্মাণের চেষ্টা করে। আমরা তাতে বাধা দেয়। ওই ঘটনায় নাছির মাঝি সদর থানায় ওই বছরের ২৭ জানুয়ারী মিথ্যা মামলা দায়ের করে। থানা ওই মামলা আদালতে প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে আদালতের মাধ্যমে বর্তমানে জামিনে রয়েছেন বলে জানান কৃষক ইউছুফ।
প্রতিকার চেয়ে গত ২৬ জানুয়ারী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অভিযোগ করে কৃষক ইউছুফ। পরবর্তী নোটিশের আলোকে ৫ ফেব্র”য়ারী ডিবি অফিসে উভয় পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে হাজির হতে বলা হয়। নাছির মাঝি তার সঠিক কাগজপত্রাদি উপস্থাপন করতে না পারায় পুনরায় পহেলা মার্চ দ্বিতীয় নোটিশ করে ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মোঃ কবির। সেখানেও মালিকানা প্রমানাদি উপস্থাপন করতে পারেনি নাছির মাঝি। 
লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আমির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কৃষক ইউছুফ পরিবারদের আবদ্ধ ঘর থেকে তাদের উদ্ধার করি। এবং পরিস্থিতি শান্ত করতে ঘর নির্মাণ না করার জন্য নির্দেশনা দিয়ে আসি।
বর্তমানে নাছির মাঝির ভয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে ভুক্তভোগী ইউছুফ ও তার পরিবার। প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।
তবে নাছির মাঝি অভিযোগ অস্বীকার করে সাংবাদিকদের বলেন তিনি এই জমি ক্রয় সূত্রে মালিক হয়েছেন। তার নিজের জমিতে ঘর নির্মাণ করেছে। ইউছুফের চাচা আবুল কালামের নিকট থেকে ক্রয় করেছে এবং তিন বছর আগে ওই জমি স্থানীয় চেয়ারম্যান পরিমাপ করে দিয়েছে। 

 

শেয়ার করুন...

আরও পড়ুন...

ফেসবুকে আমরা…